কি খেলে যৌনশক্তি বৃদ্ধি হয়? যৌনশক্তি বাড়ানোর খাবার তালিকা— আমার ইশতিহার

Spread the love

মানুষের যতগুলো আত্মতৃপ্তিদায়ক বস্তু রয়েছে, তন্মধ্যে অন্যতম হচ্ছে যৌনসম্ভোগ। বিশ্বজাহানের স্রষ্টা মহান আল্লাহ তায়ালা এ যৌনসম্ভোগের মধ্যে লুকিয়ে রেখেছেন মানুষের আত্মতৃপ্তি। যার প্রতি মানুষ এমকি সমস্ত প্রাণীই একে অপরের সাথে সহবাস বা মিলনের জন্য আগ্রহী হয়ে থাকে। খাবার দাবারে যেমন সব কিছুরই ব্যাপক চাহিদা রয়েছে, তদ্রূপ যৌনসম্ভোগের মধ্যে রয়েছে ব্যাপক চাহিদা। এমনকি খাবার দাবারের চেয়েও অধিক চাহিদা পাওয়া যায় যৌনসম্ভোগের মধ্যে। বলা হয়ে থাকে যে, জান্নাতের উপভোগ্য বস্তুসমূহের মধ্যে যৌনসম্ভোগ একমাত্র উপভোগ্য বিষয়, যা আল্লাহ তায়ালা দুনিয়াতে দান করেছেন। যৌনমিলনই কেবল পৃথিবীর মধ্যে শ্রেষ্ঠ উপভোগ্য বস্তু। এটা দুনিয়ার অদ্বিতীয় বস্তু। এ অদ্বিতীয় স্বাদের জন্যেই মানুষ স্বীয় মান-ইজ্জত এমনকি অপরের ইজ্জত সম্মানেরও পরোয়া করে না। ধ্বংস করে দেয় নিজেকে যিনা-ব্যভিচার, হস্তমৈথুন ও সমকামিতা নামক জঘন্য অপকর্মে। এসব অপকর্মের সময় এ কথাটিও মনে থাকে না যে, প্রথমে মজা সবশেষে সাজা। নিজের মূল্যবান অঙ্গ ও বীর্য তিলেতিলে ধ্বংস কথা দিচ্ছে। অথচ এ অমূল্যে সম্পদের মাধ্যমেই পার্থক্য করা হয়ে থাকে পুরুষত্ব ও অক্ষমতার মাঝে। আর যৌনসম্ভোগ আল্লাহ তায়ালার এমন একটি নেয়ামত যা সৃষ্টির সেরা মানবজাতি থেকে শুরু করে সকল জীবজন্তুও সমানভাবে অংশগ্রহণকারী ও কামনার্থী।

বিবাহিত জীবনে যৌনতায় ফিট থাকতে হলে আপনাকে দৈনন্দিন খাবার দাবারের প্রতি পূর্ণ মনোযোগী হতে হবে। কারণ মানুষ তাদের যৌন শক্তি লাভ করে থাকে তাদের খাবার দাবার থেকেই। প্রকৃত কোন সমস্যা না থাকলে আপনার যৌন শক্তি বৃদ্ধির জন্য কোন প্রকার ঔষধের প্রয়োজন নেই। দৈনন্দিন পুষ্টিকর খাবার দাবারই যথেষ্ট। সুখী দাম্পত্য জীবনের জন্য স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ভালো বোঝাপড়া থাকার পাশাপাশি দরকার স্বাস্থ্যকর যৌন জীবন।

প্রিয় বন্ধু! যৌনশক্তি বৃদ্ধিতে যৌন খাবারের কোন বিকল্প নেই। তবে আনলিমেটেড শুধু খাবার আহার করলেই হবেনা, যৌনশক্তির জন্য যৌন খাবার আবশ্যক।

যৌন খাবার কী কী?
যৌন খাবারের তালিকায় আমাদের দেশের ন্যাচরাল অনেক খাবারেই পাওয়া যায়। তারমধ্যে উল্লেখযােগ্য যেগুলো তা আপনাকে জানানোর চেষ্টা করব।

যৌন খাবারের তালিকা:

(১) ছােলাবুট:
ছােলা যৌনশক্তি বৃদ্ধিতে যথেষ্ট ভুমিকা রাখে। ছােলার মধ্যে প্রচুর পরিমাণে ডায়াটারি ফাইবার রয়েছে, যা কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে এবং যৌনশক্তি বৃদ্ধি করে । তাই শুধু রমজান মাসেই ছােলা নয় , ছােলা হােক আপনার নিত্যদিনের জীবনসঙ্গী । আমিও জীবনসঙ্গী বানিয়ে নিয়েছি আপনিও বানিয়ে নিন।

(২) বাদাম : সকল ধরনের বাদামেই আছে প্রচুর পরিমাণে ফ্যাট ও কোলেস্টেরল যা দেহের যৌন শক্তি বৃদ্ধি করে এবং বীর্য তৈরি ও ঘন হতে সাহায্য করে। বাদামের মধ্যে প্রচুরসংখ্যক জিঙ্ক থাকায় শুক্রাণুর পরিমাণ প্রচুরহারে বৃদ্ধি করে । বাংলাদেশেই কয়েকধরনের বাদাম পাওয়া যায় , যেমন এলমন্ড (কাঠ বাদাম) চিনা বাদাম , কাজু বাদাম , পেস্তা বাদাম , আখরােট ইত্যাদি । আপনার সাধ্যমতে যা পারেন তাই খাবেন , তবে রাতে ভিজিয়ে সকালবেলা খেলে বেশি উপকার পাবেন ইনশাআল্লাহ ।

(৩)মেথি : মেথিকে সাধারণত মশলা হিসেবেই ব্যবহার করা হয় । কিন্তু মেথি শুধুমাত্র মশলায় নয়, এটি ঘরােয়া যৌনচিকিৎসাও বটে। রক্তে কোলেস্টেরল বা চর্বির মাত্রা কমানাে, রােগ প্রতিরােধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে মেথি বেশ কার্যকরী ভূমিকা রাখে । আর পুরুষদের যৌনশক্তি বৃদ্ধিতে মেথির রস এক আশ্চর্যকর মহা – ঔষধ । প্রসিদ্ধ আছে , যৌন বিশেষজ্ঞগন আনুমানিক ৩০ টি দেশের ২৫ হাজার পুরুষত্বহীন পুরুষের উপর মেথি দিয়ে পরীক্ষা চালায়। সেসব পুরুষ তাদের যৌনশক্তি নিয়ে উদ্বিগ্ন ছিলাে, তাদেরকে মেথির রস দিনে দু বার সেবন করতে দেওয়া হয় । ফলে এতে আশ্চর্য রকম সুফল পাওয়া যায়। অবশ্যই মেথি রাতে ভিজিয়ে সকালে খালিপেটে খাবেন।

(৪)কালােজিরা : কালােজিরা নারী – পুরুষ উভয়ের যৌনক্ষমতা বৃদ্ধি করে । প্রতিদিন খাবারের সঙ্গে কালােজিরা খেলে পুরুষের স্পার্ম সংখ্যা বৃদ্ধি পায় । এবং পুরুষত্বহীনতা থেকে মুক্তির সম্ভাবনাও তৈরি করে ।

(৫)রসুন : রসুনকে বলা হয় গরিবের মণিমুক্তা । বহুকাল থেকেই যৌন সমস্যা মেটাতে রসুন ব্যবহার হয়ে আসছে । রসুন নারী – পুরুষ উভয়েরই যৌন উদ্দীপনাকে বাড়াতে এবং জননাঙ্গকে সক্রিয় রাখতে সাহায্য করে । এ ছাড়াও রসুনে থাকে অ্যালিসিন , যা যৌন অঙ্গগুলােতে রক্ত প্রবাহের মাত্রাকে সঠিক রাখে।

(৬)খেজুর : যৌন শক্তির সঙ্গে খুরমা ও খেজুরের সম্পর্ক সেই আদিকাল থেকেই জড়িত । চিকিৎসা বিজ্ঞানের বিভিন্ন গ্রন্থেও খুরমা ব্যবহারে যৌন শক্তি বৃদ্ধির উপকরণ হিসাবে উল্লেখ করা হয়েছে । খেজুর খেলে দ্রুত দেহের শক্তি বৃদ্ধি পায়। লক্ষ্যণীয় যে, যৌন শক্তির সঙ্গে খোরমা খেজুরের বিশেষ সম্পর্ক রয়েছে। তাই খোরমা খেজুরও খান অন্যন্য খেজুরের সঙ্গে।

(৭)মধু : মধুর উপকারিতা সম্পর্কে আমরা কে না জানি? মধু হলাে হাজারাে ফুল ও ফলের নির্যাস , যা যৌনশক্তি বৃদ্ধি করতে এবং যৌবনকে ধরে রাখতে খুবই কার্যকরী একটি উপাদান। মধু খেলে মস্তিস্ক শক্তি লাভ করে। দেহের স্বাভাবিক শক্তি তৈরি হয়।

(৮)দুধ : যৌন ক্ষমতাকে ধরে রাখতে দুধের গুরুত্ব অপরিসীম । এতে থাকা প্রাণিজ – ফ্যাট যৌন ক্ষমতা বৃদ্ধিতে অত্যন্ত সহায়ক। শরীরে সেক্স হরমােনের পরিমাণ বাড়াতে চাইলে বেশি পরিমাণে ফ্যাট জাতীয় খাবার খাওয়ার প্রয়ােজন রয়েছে । যেমন- খাঁটি দুধ , দুধের সর , টকদই , মাখন ইত্যাদি । তবে এই ফ্যাট জাতীয় খাবারগুলাে যেন হয় প্রাকৃতিক এবং মাত্রাতিরিক্ত না হয় । কারণ মাত্রাতিরিক্ত হলেই আপনার দেহের ভারসাম্য হারিয়ে ফেলবেন।

(৯) ডিম : ডিম বিবাহিত পুরুষদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি ন্যাচরাল খাবার , প্রতিটি ডিমে প্রচুর পরিমাণে প্রােটিন থাকে যা হরমােনের মাত্রাকে ঠিক রাখে এবং মানসিক অশান্তি দূর করে । রােজ সকালে একটা করে ডিম খেলে শরীরিক শক্তি ও যৌন ক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে ইনশাআল্লাহ । তবে সবসময় ন্যাচরাল ডিম খাওয়ার চেষ্টা করবেন।

(১০) কলা : কলার মধ্যে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ , বি , সি ও পটাশিয়াম থাকে , যা একজন পুরুষের যৌনসক্ষমতাকে বাড়িয়ে দেয়। এর মধ্যে আরাে থাকে ব্রোমেলাইন যা সেক্স হরমােন টেস্টোস্টেরনের পরিমাণ বৃদ্ধি করে এবং পুরুষদের মধ্যে কামশক্তিকে নতুনকরে জাগিয়ে তুলে ।

(১১)ডুমুরফল : ডুমুরফল এই ফলটিকে গ্রামগঞ্জে অবহেলার দৃষ্টিতে দেখা হয় , অথচ এই ডুমুরফলের মাঝে রয়েছে অসংখ্য ঔষধি গুণাগুণ । যৌন হরমােনকে বাড়াতে সাহায্য করে একধরনের amino aside আর এই amino asidc ডুমুরফলের মাঝে প্রচুর পরিমাণে পাওয়া যায় ।

(১২)মিষ্টি কুমড়ার বিচি: এটি খাদ্য তালিকায় সাধারণত থাকে না। ছােটকালে দেখেছি আব্বু আম্মু কুমড়ার বিচিকে লাউয়ের খােসায় সংগ্রহ করে রাখতাে , সাধারণ এই মিষ্টিকুমড়ার বিচির মধ্যে আপনি প্রচুর পরিমাণ জিঙ্ক ও এল ট্রিপটোফান পাবেন, যা দেহের হরমােন বাড়াতে সহায়তা করে। এই বিচি ভেজে ও সালাতের সাথে খাওয়া যায় ।

(১৩)আদা: যৌন উত্তেজনা বাড়াতে আদা অপরিহার্য। শরীরের উষ্ণতা ধরে রাখতে আর হৃদযন্ত্রের হল বহাল রাখতে এর জুড়ি নেই। রাতে শােওয়ার আগে তরকারিতে অথবা নিছক কাঁচা আদা গ্রহণ করুণ। প্রতিদিন বিছানায় যাওয়ার আগে এক কাপ আদা – চা পান করুন , সুফল পাবেন ।

(১৪) আমলকি ও তরমুজ : কাঁচা আমলকিতে থাকে ভিটামিন সি, আয়রন এবং জিঙ্ক। এগুলাে পুরুষদের শুক্রাণুর সংখ্যা বাড়াতে সাহায্য করে। এবং যৌনচাহিদা বৃদ্ধিতেও আমলকি অদ্বিতীয়।

(১৫) গরুর গােস্ত : যৌন বিশেষজ্ঞদের মতে গরুর গােস্তের মাঝে রয়েছে প্রচুর যৌন শক্তি।রয়েছে প্রচুর পরিমাণে জিংক। জিঙ্ক শুক্রাণুর সংখ্যা বৃদ্ধি করে এবং লিবিডো বা যৌন-ইচ্ছা বাড়ায়। গরুর মাংসে প্রচুর প্রোটিন আছে যা স্পার্মের পরিমাণ ও গুণ বৃদ্ধি করে। কলিজার মতো গরুর মাংসেও প্রচুর জিঙ্ক থাকে। তাই আপনি যৌন জীবনকে আরো আনন্দময় করতে কম ফ্যাটযুক্ত গরুর মাংস খান।
গরুর কাঁধের মাংসে ও রানের মাংসে কম ফ্যাট থাকে এবং জিঙ্ক বেশি থাকে। এইসব জায়গার মাংসে প্রতি ১০০ গ্রামে ১০ মিলিগ্রাম জিঙ্ক থাকে।

(১৬) গাজর: রয়েছে ভিটামিন-এ যা সেক্স হর্মোন প্রোজেস্টেরন তৈরি ও শুক্রাণু তৈরির হার বাড়ায়।

(১৭) শিমের বীচি: শিমের বীচিতে প্রচুর ফাইটোস্ট্রোজেন থাকে। এটা আপনার যৌন ইচ্ছা এবং যৌন সামর্থ্য বাড়ায়। জাপানিরা যৌন ইচ্ছা বাড়ানোর জন্য খাবারে প্রচুর শিমের বীচি ব্যবহার করে থাকে।

One thought on “কি খেলে যৌনশক্তি বৃদ্ধি হয়? যৌনশক্তি বাড়ানোর খাবার তালিকা— আমার ইশতিহার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

RELAED POST